ব্যাংকিং সুবিধাসহ উপজেলা সাব-রেজিস্টারি অফিস স্থাপন করুন : সদর দক্ষিণ নাগরিক কমিটি

প্রকাশিত: ৯:৫৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২

ব্যাংকিং সুবিধাসহ উপজেলা সাব-রেজিস্টারি অফিস স্থাপন করুন : সদর দক্ষিণ নাগরিক কমিটি

নিউ সিলেট রিপোর্ট : সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলা কমপ্লেক্সে অস্থায়ীভাবে চলমান উপজেলা সাব-রেজিস্টারি অফিসের অব্যবস্থাপনা ও অপ্রতুলতায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ‘সদর দক্ষিণ নাগরিক কমিটি, সিলেট। গত (২৬ সেপ্টেম্বর) সোমবার রাতে সদর দক্ষিণ এলাকার ন্যায়সংগত দাবি আদায় ও সুষম উন্নয়ন তরান্বিত করার লক্ষ্যে গঠিত অরাজনৈতিক সংগঠন ‘সদর দক্ষিণ নাগরিক কমিটি, সিলেট’র সর্বোচ্চ নীতি-নির্ধারণী ফোরাম ‘স্টিয়ারিং কমিটি’র বর্ধিত সভার এক প্রস্তাবে এ দাবি জানানো হয়।
প্রস্তাবে বলা হয়, তাড়াহুড়া করে উপজেলা কমপ্লেক্সের অভ্যন্তরে একটি স্টাফ কোয়ার্টারে উপজেলা সাব-রেজিস্টারি অফিস চালু করায় সেবাপ্রার্থী জনগণকে অশেষ দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। অপরিসর অফিসকক্ষে বিশ্রাম সুবিধা না থাকায় সেবাপ্রার্থী বৃদ্ধ বা মহিলাদের অসুবিধায় পড়তে হচ্ছে। প্রস্তাবে অবিলম্বে ব্যাংকিং সুবিধা আছে, এমন স্থানে সুপরিসর স্থায়ী উপজেলা সাব-রেজিস্টারি অফিস স্থাপনের জোর দাবি জানানো হয়।
অপর এক প্রস্তাবে আর টালবাহানা না করে স্থানীয় মোল্লারগাঁও ইউনিয়নের নির্ধারিত স্থানে ‘সিলেট মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়’র নির্মাণকাজ অবিলম্বে শুরু করার দাবি জানানো হয়। প্রস্তাবে বলা হয়, যদি আগামী মাসের মধ্যে এ উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন না করা হয়, তবে নাগরিক কমিটি মানববন্ধনসহ যে কোন কর্মসূচি ঘোষণা করতে বাধ্য হবে।
এছাড়া, এক প্রস্তাবে সড়ক ও সেতু মন্ত্রণালয় কর্তৃক ঢাকা-সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক (এন-২) কে ৬ লাইনে উন্নীতকরণ প্রকল্পে সার্ভেয়ার সংকটের অজুহাতে সিলেট প্রান্তে কাজ শুরু না করায় ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। প্রস্তাবে বলা হয়, শুধু জাতীয় নয়, আন্তর্জাতিক পর্যায়ের একটি বিশাল প্রকল্পে ৩২ জন সার্ভেয়ারের মধ্যে মাত্র ২ জনকে দিয়ে কাজ চালিয়ে নেয়ার খবরে সিলেটবাসী বিক্ষুব্দ। এতে মনে হয় এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সিলেটবাসীর সাথে বিমাতাসুলভ আচরণ করছে।
তাছাড়া, এক প্রস্তাবে সিলেট নগরির ‘প্রবেশ দ্বার’ বলে পরিচিত ঐতিহাসিক ‘কিনব্রিজ’-এর সড়কে বড় বড় গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। প্রস্তাবে কিনব্রিজের উপর থেকে ভাসমান হকার, পকেটমার, জুয়াড়ি ও প্রতারকদের উৎপাত বন্ধ এবং দ্রুততার সাথে সড়ক সংস্কারে সিটি কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়।
সংগঠনের সভাপতি আলহাজ্ব শেখ মোঃ মকন মিয়ার সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মোঃ আজম খানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল মতিন, চঞ্চল মাহমুদ ফুলর, আবদুল মালেক তালুকদার, আলহাজ্ব মোঃ ফরিদুর রহমান, জাহাঙ্গীর খান, শেখ মোঃ লায়েক মিয়া, ছয়েফ খান, নুরুল ইসলাম সুমন, হাজী ফুল মিয়া, রকিব হাসান, জুমান আহমেদ, খলিল মিয়া প্রমুখ।
সংগঠনের স্টিয়ারি কমিটির পরবর্তী সভা আগামী ১ অক্টোবর শনিবার রাত ৮টায় স্থানীয় চন্ডিপুলস্থ একটি চাইনিজ রেস্টুরেন্টে অনুষ্ঠিত হবে। এতে শুধুমাত্র স্টিয়ারিং কমিটি ও আমন্ত্রিত নির্দিষ্ট সদস্যদের উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।



এ সংবাদটি 140 বার পড়া হয়েছে.
Spread the love
        
 
    

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ শিরোনাম

অনুসন্ধান ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০